আন্তর্জাতিক

ব্রিটেন নির্বাচন: টিউলিপসহ ৪ বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত নারী বিজয়ী

ব্রিটেনের সাধারণ নির্বাচনে বড় জয় পেয়েছে ক্ষমতাসীন কনজারভেটিভ পার্টি। এবারের নির্বাচনে লেবার পার্টি থেকে টিউলিপ সিদ্দিক, রুশনারা আলী ও রুপা হকের পাশাপাশি প্রথমবারের মতো ব্রিটিশ পার্লামেন্টের সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন আফসানা বেগম। তাকে নিয়ে ব্রিটিশ পার্লামেন্টে বাংলাদেশি-বংশোদ্ভূত চার নারী প্রতিনিধিত্ব করছেন।

ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে ব্রিটেন বের হবে কিনা অর্থাৎ ব্রেক্সিট কার্যকর হবে কিনা সেই ইস্যুতে বৃহস্পতিবার দেশটিতে পার্লামেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ভোটারদের কাছে পার্টির চেয়ে বড়ো ইস্যু হয়ে উঠেছিলো ব্রেক্সিট।

নির্বাচনে টানা চতুর্থবারের মতো বেথনাল গ্রিন অ্যান্ড হে আসন থেকে নির্বাচিত হয়েছেন রুশনারা আলী। ৪৪ হাজার ৫২ ভোট পেয়ে জয়ী হন তিনি। কনজারভেটিভ পার্টির নিকোলাস স্টোভোল্ডকে ৩৭ হাজার ৫২৪ ভোটে পরাজিত করেছেন তিনি। ২০১০ সাল থেকে বেথনাল গ্রিন অ্যান্ড বো আসনে টানা তিনবার লেবার পার্টির প্রার্থী হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন রুশনারা আলী। ৪৪ বছরের এ রাজনীতিকের জন্ম সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার ভুরকি গ্রামে। ছোটোবেলায় মা-বাবার সঙ্গে লন্ডনে যান। ২০১০ সালের পর ২০১৫ সালের নির্বাচনে বিপুল ব্যবধানে নির্বাচিত হন রুশনারা আলী। ২০১৭ সালের নির্বাচনেও ভোট ব্যবধান বাড়ে।

এদিকে প্রথমবারের মতো ব্রিটিশ পার্লামেন্টের সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন আফসানা বেগম। পপলার অ্যান্ড লাইস হাউস আসন থেকে ৩৮ হাজার ৬৬০ ভোট পেয়ে সর্বকনিষ্ঠ বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ পার্লামেন্টেরিয়ান নির্বাচিত হয়েছেন তিনি। এবারই প্রথম লেবার পার্টির প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন তিনি। আফসানা টাওয়ার হ্যামলেটসের সাবেক কাউন্সিলর ও মেয়র মনির উদ্দিন আহমদের মেয়ে।

এই নির্বাচনে তৃতীয়বারের মতো লন্ডনের হ্যামপস্টেড ও কিলবার্ন আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন বঙ্গবন্ধুর নাতনি টিউলিপ রেজওয়ানা সিদ্দিক ও লিং সেন্ট্রাল অ্যান্ড অ্যাকটন আসনে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত রুপা হক।

এবারের নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন ৯ বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত প্রার্থী। যাদের মধ্যে ৭ জনই নারী। বিরোধী লেবার পার্টি থেকে লড়েছেন সর্বোচ্চ ৭ বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত প্রার্থী। লিবারেল ডেমোক্র্যাট ও কনজারভেটিভ পার্টি থেকে এক জন করে এই নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button