রাজনীতি

বিএনপির সমাবেশে পুলিশের বাধা, মঙ্গলবার ঢাকায় বিক্ষোভের ডাক

বিএনপির পূর্বঘোষিত গণতন্ত্র হত্যা দিবসের সমাবেশে পুলিশি বাধার প্রতিবাদে আগামীকাল মঙ্গলবার রাজধানী ঢাকার থানায় থানায় বিক্ষোভ মিছিলের ডাক দিয়েছে দলটি।

সোমবার বেলা ১১টায় নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে দলটির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী এ কর্মসূচি ঘোষণা করেন।

রিজভী বলেন, ‘আজকেও বিএনপির শান্তিপূর্ণ সমাবেশকে বাধা দিচ্ছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। আমাদের পূর্বঘোষিত সমাবেশ কর্মসূচিকে বানচাল করতে পোশাক ও সাদা পোশাকে পুলিশ সকাল থেকে দলীয় কার্যালয়ের সামনে ও আশেপাশের সড়ক এবং অলিগলিতে এমনকি গোটা নয়াপল্টন এলাকায় অবস্থান নিয়ে যুদ্ধংদেহী পরিবেশ তৈরি করে রেখেছে।’ তিনি বলেন, ‘সারা দেশটাই যেন আওয়ামী লীগের তালুকদারিতে পরিণত হয়েছে। যখন তখন যেকোনও সময় আওয়ামী লীগ যেকোনও স্থানে সভা-সমাবেশ করতে পারে। অথচ বিরোধী দল ও ভিন্নমতের মানুষদের সে অধিকার নেই। এদেশে শুধুমাত্র একজনেরই গণতান্ত্রিক অধিকার আছে, তিনি হলেন শেখ হাসিনা। বাংলাদেশে এক ব্যক্তিকেন্দ্রীক গণতন্ত্র চলছে। একমাত্র শেখ হাসিনার কণ্ঠস্বরের স্বাধীনতাই রয়েছে চরম পর্যায়ে। আর শেখ হাসিনার এই দুঃশাসনে বিরোধী দলের নেতাকর্মী ও ভিন্নমতের মানুষরা সাবহিউম্যান পর্যায়ে।’

রিজভী জানান, বিএনপির উদ্যোগে আজ সমাবেশ করতে না দেয়ার প্রতিবাদে আগামীকাল মঙ্গলবার ঢাকা মহানগরের থানায় থানায় প্রতিবাদ কর্মসূচির অংশ হিসেবে বিক্ষোভ মিছিল করা হবে।’

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন- বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন, স্বেচ্ছাসেবকবিষয়ক সম্পাদক মীর সরফত আলী সপু, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবদুস সালাম আজাদ প্রমুখ।বিএনপির সমাবেশে পুলিশের বাধা, মঙ্গলবার ঢাকায় বিক্ষোভের ডাক
বিএনপির পূর্বঘোষিত গণতন্ত্র হত্যা দিবসের সমাবেশে পুলিশি বাধার প্রতিবাদে আগামীকাল মঙ্গলবার রাজধানী ঢাকার থানায় থানায় বিক্ষোভ মিছিলের ডাক দিয়েছে দলটি।

সোমবার বেলা ১১টায় নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে দলটির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী এ কর্মসূচি ঘোষণা করেন।

রিজভী বলেন, ‘আজকেও বিএনপির শান্তিপূর্ণ সমাবেশকে বাধা দিচ্ছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। আমাদের পূর্বঘোষিত সমাবেশ কর্মসূচিকে বানচাল করতে পোশাক ও সাদা পোশাকে পুলিশ সকাল থেকে দলীয় কার্যালয়ের সামনে ও আশেপাশের সড়ক এবং অলিগলিতে এমনকি গোটা নয়াপল্টন এলাকায় অবস্থান নিয়ে যুদ্ধংদেহী পরিবেশ তৈরি করে রেখেছে।’ তিনি বলেন, ‘সারা দেশটাই যেন আওয়ামী লীগের তালুকদারিতে পরিণত হয়েছে। যখন তখন যেকোনও সময় আওয়ামী লীগ যেকোনও স্থানে সভা-সমাবেশ করতে পারে। অথচ বিরোধী দল ও ভিন্নমতের মানুষদের সে অধিকার নেই। এদেশে শুধুমাত্র একজনেরই গণতান্ত্রিক অধিকার আছে, তিনি হলেন শেখ হাসিনা। বাংলাদেশে এক ব্যক্তিকেন্দ্রীক গণতন্ত্র চলছে। একমাত্র শেখ হাসিনার কণ্ঠস্বরের স্বাধীনতাই রয়েছে চরম পর্যায়ে। আর শেখ হাসিনার এই দুঃশাসনে বিরোধী দলের নেতাকর্মী ও ভিন্নমতের মানুষরা সাবহিউম্যান পর্যায়ে।’

রিজভী জানান, বিএনপির উদ্যোগে আজ সমাবেশ করতে না দেয়ার প্রতিবাদে আগামীকাল মঙ্গলবার ঢাকা মহানগরের থানায় থানায় প্রতিবাদ কর্মসূচির অংশ হিসেবে বিক্ষোভ মিছিল করা হবে।’

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন- বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন, স্বেচ্ছাসেবকবিষয়ক সম্পাদক মীর সরফত আলী সপু, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবদুস সালাম আজাদ প্রমুখ।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button